ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কর্পোরেট বুলেটিন
  5. কৃষি সংবাদ
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জেলা সংবাদ
  11. ঢাকা বিভাগ
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নাগরিক সংবাদ
  14. পদ্মাসেতু
  15. পাঁচমিশালি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় গৃহবধুকে হাত-মুখ বেঁধে সংঘবদ্ধ লোমহর্ষক ধর্ষণ : ৫ বখাটের নামে মামলা

ফরিদপুর প্রতিনিধি
এপ্রিল ৪, ২০২২ ৭:২৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার নাসিরাবাদ ইউনিয়নের আলেখার কান্দা গ্রামে ২ সন্তানের জননী এক গৃহবধু (২৫)কে হাত-মুখ বেঁধে ৫ বখাটে যুবক দ্বারা রাতভর সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে গৃহবধু বাদী হয়ে ওই ৫ জনকে আসামী করে ভাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সোমবার সকালে ওই গৃহবধুকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য ফরিদপুরে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে প্রকাশ, ঐ গৃহবধুর স্বামী অসুস্থতাজনিত কারনে গত ৪ বছর আগে মৃত্যু বরণ করেন। তারপর থেকে ২ ছেলে-মেয়ে নিয়ে তিনি তার বাবার বাড়ি একই ইউনিয়নের খাকান্দা গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। গত ২৮ মার্চ বিকালে ঐ গৃহবধু তার স্বামীর বাড়ি আলেখারকান্দা গ্রামে তার চাচাশ্বশুর লুৎফর রহমান মুন্সীর কাছে তার কিছু পাওনা টাকা আনার জন্য যান। সেখানে শ^শুর বাড়ির লোকজনের সঙ্গে টাকা-পয়সা নিয়ে কথা বলতে বলতে সন্ধ্যা হয়ে যায়। সন্ধ্যার পর ঐ গৃহবধু তার শ্বশুর বাড়ির পরিচিত আসাদুল ও আল আমিনকে সঙ্গে নিয়ে বাবার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। পথিমধ্যে তারা আলেখারকান্দা গ্রামের পাশ^বর্তী আউড়াবাগ নামক এলাকায় একটি মেহগনী বাগানের কাছে পৌছলে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা ৫/৬ জন যুবক তাদের গতিরোধ করে। এ সময় আলেখার কান্দা গ্রামের নুরু শেখের ছেলে রুবেল শেখ (২২), হাসমত কাজীর ছেলে শাহীন কাজী (২৬), ইমারত কাজীর ছেলে সজিব কাজী (২০),জলিল কার ছেলে রাকিব খান (২৫), এবং ইদ্রিছ ভ’ইয়ার ছেলে হাসিবুল ভূঁইয়া (২২) ধারালো অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে আসাদুল ও আল আমিনকে মারধর করে এবং ঐ গৃহবধুকে ছিনিয়ে নিয়ে হাত ও মুখ বেধে পার্শবর্তী একটি গম ক্ষেতের ভিতর নিয়ে যায়। পরে ৫ বখাটে ওই গৃহবধুকে রাতভর পালাক্রমে ধর্ষণ করে।  সকালে সেখান থেকে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে তার বাবার বাড়ি নিয়ে যান। বাড়ি ফিরে গৃহবধু পরিবারের সদস্যদের কাছে তাকে ধর্ষনের ঘটনাটি খুলে বলে। বিষয়টিকে লোকলজ্জা এবং মেয়েটি হতদরিদ্র হওয়ায়  গোপনে প্রভাবশালীদের দিয়ে মীমাংসার কালক্ষেপন করতে থাকে। পরে বিষয়টি আস্তে আস্তে এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান, অভিযোগ পাওয়ার পর মামলা গ্রহন করে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ মাঠে রয়েছে।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভাঙ্গা থানার ওসি(তদন্ত) শফিউল আলম জানান, গৃহবধুকে ডাক্তারী পরীক্ষা ও  জবানবন্দি রেকর্ড করার জন্য ফরিদপুর কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেফতারের অভিযান চলছে। খুব শিঘ্রই আসামীদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি জাগো বুলেটিনকে জানাতে ই-মেইল করুন- jagobulletinbd@gmail.com