ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কর্পোরেট বুলেটিন
  5. কৃষি সংবাদ
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জেলা সংবাদ
  11. ঢাকা বিভাগ
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নাগরিক সংবাদ
  14. পদ্মাসেতু
  15. পাঁচমিশালি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

উদ্দীপন-এর বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

জাগো বুলেটিন
মে ২৫, ২০২৩ ৬:৩৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাংলাদেশে স্বাধীনতার পর থেকে এর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থাও কাজ করে আসছে। বিশেষ করে গ্রামীণ আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এসব সংস্থার ভূমিকা কম নয়। স্বাধীনতার ৫০ বছর পার হওয়ার পর দেশের আর্থ-সামাজিক খাতে ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। বর্তমানে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে উদ্দীপন ১৯৯১ সালে ঢাকাস্থ প্রধান কার্যালয়সহ মোট ৪টি শাখা অফিসের মাধ্যমে ৫৪ জন জনবল নিয়ে ‘ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচি’ শুরু করে। বর্তমানে উদ্দীপনের প্রধান কার্যালয়সহ ৯৪৫টি শাখা অফিসে ৫৬৭৮ জন জনবল নিয়ে ‘ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূিচ’ পরিচালনা করে আসছে। সারা বাংলাদেশে ৬৪ টি জেলার ৪৭৭টি উপজেলায় ৩৩৩৭ ইউনিয়ন ২৪,৩৪৪ টি গ্রামের ১২০৮৮৯৩ জন মানুষের সাথে ‘ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূচির’ মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে উদ্দীপন সরাসরি কাজ করছে।

স্বীকৃত হয়েছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর হিসাব অনুযায়ী, ২০২১-২২ অর্থবছরে বাংলাদেশিদের মাথাপিছু আয় ২৭০০ মার্কিন ডলারের বেশি। বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করতে বিভিন্ন সরকারি সংস্থার পাশাপাশি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার অবদান অনেক। আর সেসকল বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার মধ্যে অন্যতম উদ্দীপন। উদ্দীপন ১৯৮৪ সালে যাত্রা শুরু করে। তবে ১৯৯১ সালে উদ্দীপন ‘ক্ষুদ্রঋণ কর্মসূিচতে’ যুক্ত হয়।

উদ্দীপনের গৃহীত কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে উদ্দীপনের স্বাস্থ্য ও পুষ্টি উন্নয়ন, শিক্ষা উন্নয়ন, প্রকৃতি ও পরিবেশ উন্নয়ন, কৃষি ও প্রযুক্তি উন্নয়ন, প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন, মৎস্য সম্পদ উন্নয়ন, আর্থ সামাজিক উন্নয়ন ও জেন্ডার সমতা, ক্ষুদ্রনৃগোষ্ঠীর জীবন মান উন্নয়ন।
বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় (২৫ মে) উদ্দীপন কনভেনশন সেন্টারে ‘উদ্দীপন-এর ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভার উদ্বোধন করেন ইমেরিটাস চেয়ারম্যান শহীদ হোসেন তালুকদার সভাপতিত্ব করেন উদ্দীপনের চেয়ারম্যান ড. মিহির কান্তি মজুমদার। সভাপতির স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সভার শুরুতেই শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয় এর সভা পরিচালনা করেন নির্বাহী পরিচালক ও সিইও বিদ্যুত কুমার বসু।
বিগত দুই অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন ও অনুমোদন দেয়া হয়।
বার্ষিক সাধারণ সভায় উদ্দীপনের কোষাধ্যক্ষ ড. গোলাম আহাদের অনুমতিক্রমে পরিচালক (অর্থ ও হিসাব), মোস্তাফিজুর রহমান ও সগীর হোসেন পরিচালক (এমএফপি) ২০২২-২৩ অর্থবছর বাজেট উপস্থাপন করেন। দুই অর্থবছরে ৭৬৮২ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন শেষে তা সভায় অনুমোদন করা হয়। উক্ত সভায় অডিট রিপোর্ট ২০২১-২০২২ উপস্থাপন ও অনুমোদন এবং ২০২২-২০২৩ অডিট ফার্মনিয়োগ ও ফি নির্ধারণ করে।
২০২২-২০২৩ থেকে ২০২৬-২০২৭ মোট ৫ অর্থবছরের যথাক্রমে ২০২২-২০২৩ অর্থবছরে ৭৬৮২ কোটি টাকা ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে ৯৮৬৪ কোটি টাকা ২০২৪-২০২৫ অর্থবছরে ১১৯৫২ কোটি টাকা ২০২৫-২০২৬ অর্থবছরে ১৪৩০৪ কোটি টাকা ২০২৬-২০২৭ অর্থবছরে ১৭০৪১ কোটি টাকা (লক্ষ্যমাত্রা) বাজেট উপস্থাপন করেন নির্বাহী পরিচালক ও সিইও বিদ্যুত কুমার বসু।
সভায় উপস্থিত পরিচালনা পর্ষদ সদস্য ও সাধারন সদস্যবৃন্দ বিভিন্ন মতামত প্রদান করেন্ এবং কিভাবে উদ্দীপন আগামীতে আরো এগিয়ে যাবে সেসকল বিষয়ে বিস্তারিত আলোকপাত করে। জুমের মাধ্যমে পরিচালনা পর্ষদ সদস্য এন আই খান তার মত তুলে ধরেন। সকল আলোচনা পর্যালোচনা করে উদ্দীপনের চেয়ারম্যান ড. মিহির কান্তি মজুমদার সকলে মতামতের ভিত্তিতে বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে মতামত প্রদান করেন।
সভায় চেয়ারম্যান ড. মিহির কান্তিমজুমদার বলেন উদ্দীপন নতুন নতুন প্রকল্প বিউর্টিপার্লার, বজ্রপাতে মৃত্যুজনিত কারণে অনুদান, প্রখ্যাত ব্যাক্তির নামে উদ্দীপন শাখার নামকরণ ও জন্মবার্ষিকী পালন, ভাসমান কৃষি প্রকল্প সূর্যমূখী চাষ প্রতিবন্ধীদের প্রতিবন্ধকতা দুরীকরণ, সিনিয়র সিটিজেন প্রকল্প বালু চরে কৃষি প্রকল্প, ইট ভাটা প্রকেল্পের ওপর জোর দেন সম্মিলিতভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি আরো বলেন, উদ্দীপন মাইক্রোক্রেডিট নিয়ে কাজ করলে ও উদ্যোক্তা নিয়ে আরো বেশি কাজ করার জন্য মত প্রদান করেন। উদ্দীপনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ০১/ জনস্বাস্থ্য ও সামাজিক উন্নয়নে স্যার ফজলে হাসান আবেদ পদক, ০২/ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে জামাল নজরুল ইসলাম পদক, ০৩/ শিল্পকলা শাহ আব্দুল করিম পদক ০৪/ সাহিত্য কবি চন্দ্রাবতী পদক ০৫/ সাংবাদিকতায় ও জন সচেতনতায় কাঙ্গাল হরিনাথ পদক এই বিশ্ষ্টি পাঁচ জন ব্যক্তি নামে পদক প্রদানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।
উদ্দীপনের ডেইরি প্রকল্প ও উদ্দীপন-প্রোব হেলথ কেয়ার নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা এবং সামজিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবা সহ নতুন সকল কর্মসূচি বিশেষ করে প্রতিটি নিয়ে বর্তমান সময় বিশেষভাবে বিবেচনা করে উদ্দীপন কে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে হবে এবং সবাই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার জন্য সকলকে আহবান জানান।

উদ্দীপন-এর ৩৯তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এ আরও উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান জাকিয়া কে হাসান, পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মাহবুবুর রহমান, নাহিদ সুলতানা, ডা. আবু জামিল ফয়সাল, শওকত হোসেন, ভবতোষ নাথ, সাধারণ পর্ষদ সদস্য রেহানা বেগম, রোকেয়া খাতুন, মিনা সরকারসহ অন্য সদস্যবৃন্দ ।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি জাগো বুলেটিনকে জানাতে ই-মেইল করুন- jagobulletinbd@gmail.com