ঢাকাশুক্রবার , ২১ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কর্পোরেট বুলেটিন
  5. কৃষি সংবাদ
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জেলা সংবাদ
  11. ঢাকা বিভাগ
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নাগরিক সংবাদ
  14. পদ্মাসেতু
  15. পাঁচমিশালি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

ঈদকে ঘিরে স্বপ্ন দেখছেন সাভারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা

মো: রওশন আলী
এপ্রিল ১৩, ২০২২ ১১:০৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

করোনা কারণে দুই বছর কঠিন সময় পার করেছে সাভারের ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায় টিকে থাকতে অনেকেই ঋণের বোঝা কাঁধে নিয়েছেন।

করোনার দুই বছর ব্যবসা করতে না পারলেও এবারের ঈদকে ঘিরে স্বপ্ন দেখছেন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। বিগত দিনের ক্ষতি কিছুটা হলেও কাটিয়ে উঠার প্রত্যাশা তাদের। মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সাভারের কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী আলাপকালে তাদের প্রত্যাশার কথা ব্যক্ত করেছেন।

গত দুই বছর করোনার কারণে লকডাউনে রমজান মাসে কোন অর্ডার ছিল না। শুধু তাই নয় সারা বছর স্কুলে ড্রেসের কাজ করতাম সেটিও বন্ধ ছিল। অথচ লকডাউনেও দোকান ভাড়া গুলো নিয়মিত দিতে হয়েছে ধারদেনা করে বললেন সাভার পৌরসভার ব্যাংক কলোনী মাদ্রাসা রোডে অবস্থিত ওমর ফ্যাশন টেইলার্সের স্বত্বাধিকারী মো: সুমন।

তিনি বলেন, গত দুই বছর করোনা আমাদের জীবন থেকে অনেক কিছু কেড়ে নিয়েছে। আমার দীর্ঘ জীবনের ব্যবসায় এমন দুঃসময় কখনো আসেনি। ব্যবসা টিকিয়ে রাখার জন্য ঋণে জর্জরিত হয়ে গেছি। এবছর রমজানে মোটামুটি কাপড়ের অর্ডার আসছে। এটি অব্যাহত থাকলে কিছুটা ঋণ পরিশোধ করতে পারবো।

করোনা ও লকডাউনের কারণে বছরজুড়ে একেবারেই বেকার ছিলাম। ঋণ করে চলেছি। এখনও অনেক ঋণ রয়েছে বলে জানালেন সাভার বাজার বাস স্ট্যান্ড এলাকার শাহজালাল মার্কেটের জুতা ব্যবসায়ী মোঃ হানিফ দুলাল। তিনি বলেন, করোনায় ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের সবচেয়ে খারাপ সময় গেছে। ঐসময়টায় আমাদের দিন না খেয়ে কেটেছে। তবে দিন ফেরার আশায় নতুন করে শুরু করেছি। এই ঈদে ব্যবসা করে কিছুটা ঋণ শোধ করতে পারবো বলে তিনি জানান।

বেচাকেনা মোটামুটি হচ্ছে, মানুষ আসছে, এ রকম আসতে থাকলে ঈদের দিন পর্যন্ত ভালোই মুনাফা হবে। পরিবার নিয়ে শান্তিতে ঈদের খুশি ভাগাভাগি করে নিতে পারবো বলে জানান ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভার বাজার বাস স্ট্যান্ড এলাকার ফুটপাতে তৈরি পোশাক বিক্রেতা আব্দুল আহাদ ও আক্তার হোসেন ।

তবে তারা বলেন, আমাদের চাহিদা কম, যেটুকু বিক্রি হচ্ছে খারাপ না, এটা আরও বাড়বে। গত দুই বছর করোনার কারণে ঋণ করে সংসার চালিয়েছি। ঋণের বোঝা নিয়ে চলছি। এই ঈদে ব্যবসা করে কিছুটা হলেও ঋণ শোধ দিতে পারবো। এবারের বেচাকেনা নিয়ে আশাবাদী বলে তারা উল্লেখ করেন।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি জাগো বুলেটিনকে জানাতে ই-মেইল করুন- jagobulletinbd@gmail.com