ঢাকাবৃহস্পতিবার , ১৮ এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কর্পোরেট বুলেটিন
  5. কৃষি সংবাদ
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জেলা সংবাদ
  11. ঢাকা বিভাগ
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নাগরিক সংবাদ
  14. পদ্মাসেতু
  15. পাঁচমিশালি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

মোংলায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে ফলজ গাছ কর্তন

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
মে ১৪, ২০২২ ৪:০৪ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বাগেরহাটের মোংলা উপজেলার ১নং ওয়ার্ডের মাকোরঢোন এলকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে সংখ্যালঘু প্রীতি লতা ঘটক এর ক্রয়কৃত জমির ফলজ গাছ জোরপূর্বক দখলের করতে গিয়ে পাশের শরীক মৃত মকবুল সরদারের ছেলে মোঃ মাহাবুব সরদার (৩৮) ও মোঃ রাজু (৩২) এর বিরুদ্ধে গাছ কর্তনের অভিযোগে মোংলা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে ভুক্তভোগী প্রীতি লতা ঘটক।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সংখ্যালঘু প্রীতি লতা ঘটকের সাথে তাদের পাশের শরীক মাহাবুব সরদার (৩৮) ও মোঃ রাজু (৩২) এর সাথে পূর্ব থেকে বিরোধ চলছে। অভিযোগ সুত্রে আরো জানাযায় দীর্ঘদিন ধরে বাদীনির পিতার জমি জোর পূর্বক জবর দখল করার চেষ্টাসহ তাকে ক্ষতি সাধনের জন্য বিভিন্ন সময়ে হুমকি ও ভয়ভীতি দিয়ে আসছে। পৈত্রিক সমত্তি নিয়ে সরিকগনের সাথে বিরোধ থাকায় বাগেরহাট আদালতে মামলা চলমান আছে। কিন্তু আদালতের নির্দেশ অমান্য করে হাতে দা, কুড়াল নিয়ে অনধিকার প্রবেশ করে জমির সীমানার ঘেড়াবেড়া ভাংচুর করে বিভিন্ন গালমন্দ করে ও ফল গাছ কেটে ফেলে এবং তাদের কে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। এই নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
স্থানীয়রা বলেন, জমি যারই হোকনা কেনো এভাবে আইন হাতে নিয়ে গাছ কাটা ও বেড়া ভাংচুর করা তো অন্যায়। এটাতো সন্ত্রাসী কার্যকলাপের সামীল। তারা সংখ্যালঘুদের উপরে এই অত্যাচার এর দ্রুত সুষ্ঠ বিচারের দাবী করেন।
ভুক্তভোগী প্রীতি লতা ঘটক জানান আমি এক নিরিহ মানুষ। আমার কোন পেশী শক্তি নাই। আমি একজন শিক্ষিকা মানুষ, আমার স্বামী নাই, আমরা সংখ্যালঘু বলে তারা আমাদের উপর এভাবে নির্যাতন করছে। তারা যদি চায় তাহলে আমরা এদেশ ছেড়ে চলে যাই। আমার জমিতে গাছ লাগিয়েছি সে গাছ তারা কেটে ফেলে দিয়েছে। আমি পুলিশ প্রশাসনের কাছে এর সুবিচার চাই।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মোঃ মাহাবুব সরদার বলেন, তারা আমার জায়গায় গাছ লাগাইছে তাই আমি কেটে দিছি। আর আমার জায়গার গাছ আমি কেটে আমার জায়গা পরিষ্কার করেছি, তাতে কি হবে?
মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম বলেন, আমরা জমিজমা বিরোধ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করার জন্য একজন পুলিশ অফিসার কে দায়িত্ব দেওয়া হইছে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি জাগো বুলেটিনকে জানাতে ই-মেইল করুন- jagobulletinbd@gmail.com