ঢাকারবিবার , ১৬ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  1. অপরাধ
  2. আন্তর্জাতিক
  3. আবহাওয়া
  4. কর্পোরেট বুলেটিন
  5. কৃষি সংবাদ
  6. খেলাধুলা
  7. গণমাধ্যম
  8. চাকরি
  9. জাতীয়
  10. জেলা সংবাদ
  11. ঢাকা বিভাগ
  12. ধর্ম ও জীবন
  13. নাগরিক সংবাদ
  14. পদ্মাসেতু
  15. পাঁচমিশালি
আজকের সর্বশেষ সব খবর

দুই ছিনতাইকারীকে একাই শায়েস্তা করলেন জবি ছাত্রী

জাগো বুলেটিন
জুলাই ২২, ২০২২ ৬:০৯ অপরাহ্ণ
Link Copied!

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর অসীম সাহসিকতায় ধরা পড়লো ছিনতাইকারী। কারওয়ান বাজারে জ্যাম আটকে রয়েছে বাস। একটি বাসে বসেছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া এক তরুণী। ছোঁ মেরে হঠাৎ জানালা দিয়ে তাঁর মোবাইলটি নিয়ে যায় এক ছিনতাইকারী। বাস থেকে নেমেই ঐ ছিনতাইকারীর পেছনে ধাওয়া করেন। কারও সহায়তা ছাড়া একাই পুলিশে দিলেন তিনি। দুই ছিনতাইকারী একসাথে ধরিয়ে দেয়ার পরও থানা পুলিশের কাছ থেকে সহায়তা না পাওয়ার অভিযোগ ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীর।

বুধবার (২০ জুলাই) সন্ধ্যার দিকে মিরপুর থেকে বাসে পুরান ঢাকায় যাচ্ছিলেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই শিক্ষার্থী।  রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকার ঘটনা। ফোন ছিনতাইকারীকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন। কৌশলে ধরতে সমর্থ হন।

জানালা দিয়ে ছোঁ মেরে তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে নেয় এক ছিনতাইকারী। বাস থেকে নেমে ছিনতাইকারীকে ধাওয়া করে ভুক্তভোগী তরুণী। কিন্তু পালিয়ে যায় সেই অভিযুক্ত। এরই মাঝে ওই শিক্ষার্থী ঘটতে দেখেন আরেক ছিনতাইয়ের ঘটনা। এক নারীর ব্যাগ নিয়ে পালাচ্ছিল আরেক ছিনতাইকারী। আর তখনই ধাওয়া করে ওই ছিনতাইকারীকে ধরে ফেলেন  ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী। মাটিতে ফেলে নিজের মোবাইল হারানোর রাগ ঝাড়তে দেখা যায় ব্যাগ ছিনতাইকারীর উপর।

তবে একাই দুই ছিনতাইকারীকে ধরিয়ে দিলেও থানা পুলিশের আশানুরূপ সহায়তা পাননি বলে দাবি করেন ঐ শিক্ষার্থী। বুধবার মিরপুর থেকে বাসে করে পুরান ঢাকায় যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। কৌশলে ছিনতাকারীকে ধরতে সহায়তা করেন মানবজমিন পত্রিকার সাংবাদিক জীবন আহমেদ।

দুই ছিনতাইকারীকে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে পুলিশ এসে ছিনতাইকারী দুইজনকে থানায় নিয়ে যায়। এসময় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকেও পুলিশের সঙ্গে থানায় যেতে হয়।

একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা যায়-  পুলিশের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে ওই তরুণী বলছেন, দুই দুইজন ছিনতাইকারীকে ধরিয়ে দেওয়ার পরেও পুলিশ যদি আমার মোবাইল ফোন উদ্ধার না করতে পারে এরচেয়ে দুঃখজনক আর কিছু নেই। আমি একজনকে ধরে তার কাছ থেকে কথা নিয়ে আরেক ছিনতাকারী ধরে ফেললাম। আর আপনারা দুইজনকে পেয়েও ফোন উদ্ধার করতে পারছেন না?

এ সময় একজন পুলিশ সদস্য বলেন, আমরা চেষ্টা করবো। চেষ্টা করছেন-বলে তরুণী ফের ক্ষোভ প্রকাশ করেন। যদি পুলিশ তার ফোন উদ্ধার করতে না পারে তবে এর চেয়ে বড় ব্যর্থতা আর কিছুই হতে পারে না। রাজধানীতে ছিনতাইয়ের ঘটনার মধ্যে এক নারীর এমন সাহসী কাজ দেখে বাহবা দিতে দেখা যায় অনেককেই। যদিও শুরুতে ভুক্তভোগীর সহায়তায় এগিয়ে আসেনি কেও।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।

আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি জাগো বুলেটিনকে জানাতে ই-মেইল করুন- jagobulletinbd@gmail.com